Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

উপজেলারিসোর্স সেন্টারের কর্মপরিধিঃ

* স্থানীয়ভাবেঅথবাপ্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর /নেপ পরিচালিত প্রাথমিক শিক্ষা সংক্রামত্ম যাবতীয় প্রশিক্ষণ /ওরিয়েন্টেশন/ সেমিনার আয়োজনের কেন্দ্র হিসাবে কাজ করা।

* তাৎক্ষণিক চাহিদার ভিত্তিতে/চাহিদা যাচাইয়ের ভিত্তিতে প্রধান শিক্ষক, শিক্ষক, প্রাথমিক শিক্ষার সাথে জড়িত কর্মকর্তা/কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা, প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ সামগ্রী তৈরি করে প্রশিক্ষণ আয়োজন করা।

* পাঠসংশ্লিষ্ট শিক্ষোপকরণ তৈরি, সংরক্ষণপরিকল্পনা  ও শ্রেণী কক্ষে এর ব্যবহার সম্পর্কে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা।

* একাডেমিক সুপারভিশনের মাধ্যমে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ চাহিদা যাচাই এবং প্রশিক্ষণের ফলাফল/ প্রভাব প্রত্যক্ষ করে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ এবং চাহিদা ভিত্তিক প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা, প্রশিক্ষণ উপকরণ প্রণয়ন ও প্রশিক্ষণ বাসত্মবায়ন করা।

* সাব-ক্লাস্টার প্রশিক্ণ পরিদর্শন করে মূল্যায়নধর্মী প্রতিবেদন প্রণয়ন করা এবং নিজ সংস্থার প্রশিক্ষণ পরিকল্পনায় অর্জিত অভিজ্ঞতার ব্যবহার করা।

* বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের চাহিদা যাচাইয়ের জন্য শিক্ষক প্রোফাইলসহ বিদ্যালয়ের মান সংক্রামত্ম তথ্য সংরক্ষণ করা।

*প্রাথমিক শিক্ষা সংক্রামত্ম বইপত্র, পিরিয়ডিক্যালস, ম্যাগাজিন ইত্যাদি সংগ্রহ, সংরক্ষণ এবং এর কার্যকর ব্যবহারের ব্যবস্থা করা। স্থানীয়ভাবে অবহিতকরণের জন্য ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে নিউজ লেটার/তথ্যপুসিত্মকা প্রকাশ করা।

* একটি রিসোর্স পুলের সহযোগিতায় প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা প্রণয়ন ও অনুমোদনের জন্যে URCকমিটিতে উপস্থাপন করা (উল্লেখ্য যে, প্রতিটি উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের একটি উপজেলা রিসোর্স পুল থাকবে। এলাকার অসাধারণ মেধাবী শিক্ষক, পিটিআই ইন্সট্রাক্টর, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার, গায়ক, শিল্পী, নাঠ্যকর্মী, ক্রীড়াবিদ, পাঠক প্রণেতা প্রভূতি ব্যক্তিবর্গ নিয়ে এ পুল গঠন করা যাবে। ইউআরসি কর্মকর্তাগণ এ রিসোর্স পুল-এ তথ্যাভিজ্ঞ ব্যক্তিবর্গের সহায়তা নিয়ে তাঁদের একাডেমিক কার্যক্রম উন্নয়ন ও পরিকল্পনা করবেন)।

উপজেলা রিসোর্স সেন্টার কমিটিঃ গঠন প্রকৃতি ওব্যবস্থাপনা

প্রত্যেকটি উপজেলারিসোর্স কেন্দ্রের কার্যক্রম দেখাশুনা করার জন্য নিম্নলিখিত ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি থাকবে। এই কমিটি উপজেলা রিসোর্স সেন্টার কমিটি নামে অভিহিত হবে। সংশ্লিষ্ট জেলার পিটিআই সুপার এই কমিটির সভাপতি হবেন। উক্ত জেলার পিটিআই  থাকলেনিকটস্থ জেলার পিটিআই সুপার এই কমিটির সভাপতি হিসাবে কাজ করবেন।

জেলার/ নিকটস্থ জেলার পিটিআই সুপার          -          সভাপতি

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার                    -          সদস্য

সংশ্লিষ্ট থানা শিক্ষা কর্মকর্তা                      -          সদস্য

উপজেলার মডেল স্কুলের প্রধান শিক্ষক            -          সদস্য

ইন্সট্রাক্টর (ইউআরসি)                          -          সদস্য সচিব

বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ:

শ্রেণীশিক্ষকগণের বিষয়ভিত্তিক দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য স্বল্পমেয়াদী বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এক্ষেত্রে উপজেলার যোগ্যতাসম্পন্ন দক্ষ, অভিজ্ঞ শিক্ষককে নির্বাচন পুর্বক Training of Trainer (TOT) প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। A & B গ্রেড প্রাপ্ত এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তৃক মনোনীত প্রশিক্ষকগণ বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন। ইংরেজীতে ৬জন, বাংলায় ৮জন, সমাজ ৮জন, গণিত ৭জন, বিজ্ঞান ৬জন মোট ৩৫জন প্রশিক্ষক আধুনিক ধ্যান-ধারণা, বিজ্হানভিত্তিক এবং প্রাথমিক শিক্ষার চলমান কারিকুলাম অনুযায়ী আনন্দঘন এবং শিখন বান্ধব পরিবেশে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন।

পিইডিপি-২ এর আওতায় ইউআরসি, কালীগঞ্জ, লালমনিরহাট কর্তৃক২৫জন শিক্ষককে নিয়ে ১টি ব্যাচ করে প্রতি ব্যাচ ৫দিন ব্যাপি বাংলা বিষয়ে ৩২৫জন, ইংরেজি-৩২৫জন, গণিত-৩৫০জন, সমাজ-৩২৫জন, বিজ্হান বিষয়ে ৩২৫জন শিক্ষককে প্রশিক্ষিত করা হয়। শিক্ষকগণ প্রশিক্ষণলদ্ধ জ্ঞান প্রয়োগ করে শ্রেণী পাঠদানে আনন্দদায়ক পরিবেশ সৃস্টি করেন এবং যোগ্যতাভিত্তিক ধারাবাহিক মূল্যায়নৈর মাধ্যমে পাঠের শিখনফল অর্জনেততপর থাকেন। যার ফলশ্রুতিতে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষাসহ অন্যান্য শ্রেণীভিত্তিক পরীক্ষায় শিক্ষাথীদের কৃতকার্যের হার বৃদ্ধি পায়।

প্রধান শিক্ষকগণকে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণ:

অফিস ব্যবস্থাপনা, আর্থিক ব্যবস্থাপনা ও একাডেমিক সুপারভিশন বিষয়ে প্রধান শিক্ষককে ৭দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। মোট ৫টি ব্যাচে ১২৫জন প্রধান শিক্ষককে প্রশিক্ষিত করা হয়। এই প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার।

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রশিক্ষণ:

সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ এবং বিদ্যালয় স্টকহোল্ডারদেরকে বিদ্যালয়ের সাথে সম্পৃক্ত করার জন্য বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যগণের ২দিন ব্যাপি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এই প্রশিক্ষণে ১২টি ব্যাচে মোট ৩৬০জন্য সদস্য প্রশিক্ষিত হয়।ব্যবস্থাপনা কমিটি তাদের দায়িত্ব পালনের সাথে সাথে প্রজ্ঞাপন ও সরকারি আদেশ নির্দেশ অবহিতকরণ ও বিদ্যালযে তাদের সম্পৃক্ততার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করা হয়। এই প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার।

সুস্বাস্থ্য সুশিক্ষাবিষয়ক প্রশিক্ষণ:

বিদ্যালয়ে কোমলমতি শিশুদের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিষয়ে প্রতি বিদ্যালয় থেকে ১জন করে প্রতি ব্যাচ ২দিন ব্যাপী ৫ ব্যাচে মোট ১৫০জন শিক্ষককে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এই প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক জন আবাসিক চিকিৎসক ও ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর ।

প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা বিষয়ক প্রশিক্ষণ:

প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সরকার বিভিন্নমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এক্ষেত্রে প্রত্যেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ১জনকরে শিক্ষককে ৬দিন ব্যাপি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এই প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেনে ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার।

জনবলঃ   (১)        ইন্সট্রাক্টর পদ                            -১টি                   (প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা)(পদ শূন্য)

            (২)        সহকারী ইন্সট্রাক্টর পদ                  -১টি                   (দ্বিতীয় শ্রেণীর কর্মকর্তা)

            (৩)        ডাটা এন্ট্রি অপারেটর পদ              -১টি                   (তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী)

            (৪)        নাইট গার্ড/ এমএলএসএস পদ         -১টি                   (চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারী )